সিরাজগঞ্জে দুর্গাপূজা হবে ৪৭০টি মণ্ডপে, চলছে সাজসজ্জা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :

শারদীয় দুর্গাপূজাকে ঘিরে সিরাজগঞ্জে পালপাড়াতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা। ইতোমধ্যে সিরাজগঞ্জের বেশির ভাগ প্রতিমার অবকাঠামোর কাজ শেষ।

এখন দেবী দুর্গার অনিন্দ্য সুন্দর রূপ দিতে দিনরাত রং-তুলির মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছেন প্রতিমা শিল্পীরা।

অবশ্য জেলায় এবার আলোকসজ্জার কোন আয়োজন নেই। তবুও আয়োজনের কোন কমতি নেই। এবার জেলার ৯টি উপজেলার ৪৭০টি মণ্ডপে সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

জেলার বিভিন্ন পালপাড়ায় দেখা যায়, করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রতিমার অর্ডার অনেকটাই কমে গেছে। জেলার সদর, কামারখন্দ, উল্লাপাড়া, শাহজাদপুর, রায়গঞ্জ, তাড়াশ, বেলকুচি, কাজিপুর, ও চৌহালীর বিভিন্ন পূজামন্ডপে দিনরাত রংতুলির কাজ নিয়ে ব্যস্ত প্রতিমা শিল্পীরা।

আগামী রোববার (২২ অক্টোবর) শুরু হয়ে ৫ দিনব্যাপী চলবে এই শারদীয় উৎসব।

প্রতিমা শিল্পীরা জেলার বিভিন্নস্থান থেকে এসে রং তুলির কাজ করছেন। কামারখন্দ উপজেলার ভদ্রঘাট পালপাড়ার প্রতিমা তৈরির কারিগর (৬৫) গুপিনাথ পাল বলেন, প্রতি বছর ২০/২৫টি প্রতিমা তৈরি করে থাকি। কিন্তু এ বছর মাত্র ১৫টি প্রতিমার কাজ করছি। এ বছর অনেকটাই প্রভাব ফেলেছে করোনা। ১৫টি প্রতিমার মধ্যে এখনো ১ সেট প্রতিমা বিক্রি করতে পারিনি। এখানেও আমাদের অনেকটাই লোকসান গুনতে হবে। আমি নিজেও বাপ-দাদার ঐতিহ্য ধরে রাখতে প্রায় ৪০ বছর যাবৎ এই পেশার সাথে জড়িত রয়েছি। এরকম অবস্থা আমার বয়সে দেখিনি।

রণজিত পাল ও সুভাষ পালসহ কয়েকজন প্রতিমা শিল্পী জানালেন, প্রতিমা তৈরির উপকরণ মাটি, খড় ও সুতলি-রঙের দাম বেড়ে যাওয়ায় আগের মতো প্রতিমা তৈরি করে আর্থিক ভাবে লাভবান হওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এবার পূজার মন্ডপের সংখ্যা কমে যাওয়ায় আমাদের প্রতিমা বিক্রিও কমে গেছে।

তারা আরও জানান, সিরাজগঞ্জের তৈরি প্রতিমা বগুড়া, পাবনা, টাঙ্গাইল, জামালপুর, শেরপুরসহ বিভিন্ন জেলায় বিক্রি করা হতো। কিন্তু করোনার প্রভাবে তারা এই অর্ডারগুলো থেকে বঞ্চিত হয়েছেন।

জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সন্তোষ কুমার কানু বলেন, দুর্গা পূজার প্রায় সব ধরণের প্রস্তুতি শেষ পর্যায়ে। করোনা ভাইরাসের কারণে এবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা করতে হবে। শুধু সাজসজ্জার সামান্য কাজ বাকি।
সামনে যে সময় আছে তাতে আমরা সময় মত সব কাজ শেষ করতে পারবো। এ বছর সিরাজগঞ্জের ৯টি উপজেলার প্রায় ৪৭০টি পূজা মন্ডপে দুর্গাপূজার আয়োজন চলছে। সব মিলিয়ে আমাদের এবারের পূজা আনন্দঘন ও জাঁকজমকপূর্ণ ভাবে শেষ হবে বলে আশা করছি।

সিরাজগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম (বিপিএম) জানান, এবারের পুজায় যে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়ানোর জন্য সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রতি বছরের ন্যায় এবারো আনন্দ মুখর পরিবেশে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, তবে প্রতিটি মণ্ডপে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক সাধ্য অনুযায়ী রাখতে হবে। একসাথে জটলা পাকানো যাবে না, কোন উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করা যাবে না। প্রতিটি পূজামণ্ডপে সার্বক্ষনিক পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকবে। এছাড়াও আনসারসহ মোবাইলটিমের নজরদারি থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *