আলুর দামে স্বস্তি ফিরবে কবে?

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বন্যা শাক-সবজির উপর প্রভাব ফেলেছে। ফলে কিছুটা প্রভাব পড়েছে আলুর ওপর। তাছাড়া এবছর আলুর উৎপাদনেও দেরি হবে। তবে শীতকালীন শাক-সবজি কিন্তু কিছুদিনের মধ্যে বাজারে আসবে। তখন আলুর ওপর চাপ কমবে।আলু নিয়ে এমন মন্তব্য শোনা গেছে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির কাছ থেকে। রোববার (১৮ অক্টোবর) বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ে কোল্ডস্টোরেজ মালিক, আড়ৎদার ও পাইকারি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এসব মন্তব্য করেন। কিন্তু বর্তমানে আলুর অতিরিক্ত দামে ভোক্তদের অস্বস্তি বেড়েই চলেছে।
এর আগে কৃষি বিপণন অধিদপ্তর থেকে কোল্ডস্টোরেজ পর্যায়ে ২৩ টাকা, পাইকারি পর্যায়ে ২৫ টাকা ও খুচরা পর্যায়ে ৩০ টাকা দাম নির্ধারণ করে দেয়া হয়। এই দাম বাস্তবায়ন করতে জেলা প্রশাসকদের চিঠি দিয়ে অনুরোধ জানায় কৃষি বিপণন অধিদপ্তর। তবে সেই নির্দেশনা বাস্তবায়ন হয়নি। রাজধানীতে এখনো খুচরা পর্যায়ে আলু ৫০ টাকা বা তার বেশি দরে বিক্রি হচ্ছে।

রোববার বৈঠক শেষে আগামী তিনদিনের মধ্যে টিসিবি ২৫ টাকা কেজি দরে আলু বিক্রি করবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।
তবে সোমবার (১৯ অক্টোবর) সকালে টিসিবি চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব ও তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা যতদ্রুত সম্ভব আলু বিক্রি শুরু করব। তবে কবে থেকে হবে তা এখনো নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। আমাদের রেগুলার পণ্যগুলো স্টকে থাকে। কিন্তু আলু আমাদের রেগুলার পণ্য না হওয়ায় এটা নতুন করে সংগ্রহ করে তারপর বিক্রি করতে হবে। মন্ত্রী একটি নির্দেশনা দিয়েছেন, সেটা কত দ্রুত বাস্তবায়ন করা যায় তা আমরা দেখছি।’

এদিকে আলুর যে দাম নির্ধারণ করা হয়েছে সেটা বাস্তায়ন দেখা যাবে কিনা ও মনিটরিং করা হবে কিনা জানতে চাইলে টিপু মুনশি বলেন, এই দামটা আমরা নির্ধারণ করিনি। তবে আমরা এই দাম দ্রুত বাস্তবায়নে যাবো। পাশাপাশি ব্যবসায়ীরা বলেছেন এই দামটা আর একটু বিবেচনায় নিতে। সেখানে আমরা দু’এক দিনের মধ্যে বসে ২৩ টাকা থেকে যদি আরো এক টাকা বাড়ানোর প্রয়োজন বলে মনে করি তাহলে দেখবো।

তিনি বলেন, এই মুহূর্তে আমাদের যে দাম নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে সেটা বাস্তবায়ন করবো। আর বাজরে যেটা ৩০ টাকা করা হয়েছে সেটা টিসিবির মাধ্যমে ২৫ টাকায় বিক্রি করার চেষ্টা করবো। বাজারগুলোতে আমাদের মনিটরিং টিম থাকবে এবং আছে। কাল থেকে র‌্যাবও অভিযানে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *