কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়ায় লঞ্চ চলাচল বন্ধ

মাদারীপুর প্রতিনিধি :

কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌপথে নাব্যতা সংকটের কারণে বন্ধ রাখা হয়েছে লঞ্চ চলাচল। সোমবার সকাল থেকে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখায় যাত্রীরা স্পিডবোটে করে পারাপার করছে।

লঞ্চের মালিক ও চালকেরা বলছেন, নৌপথের নৌ-চ্যানেলে পর্যাপ্ত পানি না থাকায় চ্যানেল অতিক্রম করতে গিয়ে লঞ্চ আটকে যাচ্ছে ডুবোচরে। গত দেড় মাসে অন্তত ৩০টি লঞ্চ ডুবোচরে আটকে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। বেশ কিছু লঞ্চের তলা ফেটে গেছে। নৌপথে এ ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

কাঁঠালবাড়ি লঞ্চঘাট সূত্র জানায়, প্রায় দুই মাস ধরে এই নৌপথে নাব্যতাসংকট থাকায় ব্যাহত হচ্ছিল লঞ্চ চলাচল। প্রতিটি লঞ্চের চালক বাঁশ দিয়ে পানির গভীরতা মেপে খুবই ঝুঁকি নিয়ে লঞ্চ চালাতেন। গত কয়েক দিন ধরে নৌ-চ্যানেলে পানি কমতে থাকায় লঞ্চের তলদেশ ডুবোচরে আটকে যাচ্ছে। সোমবার সকালে এই সংকট প্রকট আকার ধারণ করায় লঞ্চ মালিক সমিতির পক্ষ থেকে সাময়িকভাবে লঞ্চ চলাচল স্থগিত রাখা হয়।

বাংলাদেশ লঞ্চ মালিক সমিতির কার্যকারী কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য মনিরুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের মালিক পক্ষের এই নৌপথে লঞ্চ চালানো ইচ্ছা থাকলেও সেটা সম্ভব হচ্ছে না। আমি নিজে নৌ-চ্যানেলে গিয়ে দেখেছি কোনো ড্রেজিং কাজ চলছে না। যতটুকু জায়গায় ডুবোচর ততটুকু স্থানে বালু কাটলে সমস্যা আরও আগেই সমাধান হয়ে যেত। গতকাল আমাদের ১৫টি লঞ্চ ডুবোচরে আটকে গেছে। এমন ভয়াবহ পরিস্থিতির কারণে এখন লঞ্চের কর্মীরা লঞ্চ চালাতে চাচ্ছেন না।’

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) কাঁঠালবাড়ি লঞ্চঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন বলেন, ‘সকাল থেকেই লঞ্চ চলাচল বন্ধ। চ্যানেলে তীব্র নাব্যতা সংকট রয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা হয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *