ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই


নজিস্ব প্রতিবেদক :

সুপ্রিম কোর্টের প্রবীণ আইনজীবী, সাবেক এ অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই (ইন্না-লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। শনিবার (২৪ অক্টোবর) সকাল সাড়ে আটটার দিকে রাজধানীর মগবাজারের আদ্-দ্বীন হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

তার মৃত্যুর বিষয়টি জানিয়েছেন আদ্-দ্বীন হাসপাতালের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাহিদ ইয়াসমিন।

এর আগে শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) এক ভিডিও বার্তায় হাসপাতালের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাহিদ ইয়াসমিন বলেন, গত ১৫ তারিখ থেকে স্যার (রফিক-উল হক) আমাদের এখানে ভর্তি আছেন। স্যার এখন লাইফ সাপোর্টে আছেন। স্যারের অবস্থা অপরিবর্তিত। স্যার এখন সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় আছেন। স্যারকে দেখতে গণ স্বাস্থ্যের ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী স্যার এসেছিলেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ( ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস সাহেব খোঁজ-খবর নিয়েছিলেন। আরও অনেক ব্যারিস্টার, শুভাকাঙ্ক্ষী খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। তার শারীরিক অবস্থা জানতে চেয়েছেন।

তিনি বলেন, স্যারের রক্তের পরীক্ষা-নিরীক্ষাগুলো করেছি। কিন্তু তাতে কোনো একটা উন্নতি দেখা যাচ্ছে না। মেডিক্যাল বোর্ডের সঙ্গে কথা বলেছি। ওনারা দেখেছেন। ওনারাও বলেছেন স্যারের শারীরিক অবস্থা সঙ্কটাপন্ন। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি।

বুধবার (২১ অক্টোবর) ব্যারিস্টার রফিক-উল হককে আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে আদ্-দ্বীন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার রফিক-উল হককে আদ্-দ্বীন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে তাকে হাসপাতালের ভিআইপি কেবিনে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। তিনি হাসপাতালের ডা. রিচমন্ড রোল্যান্ড গোমেজের তত্ত্বাবধানে ছিলেন। পরে ১৭ অক্টোবর সকালে তার শারীরিক অবস্থা স্বাভাবিক হওয়ায় হাসপাতাল থেকে বাসায় নেওয়া হয়। কিন্তু ওইদিন দুপুরের পরই তাকে ফের হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়।

সাবেক এ অ্যাটর্নি জেনারেল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আইনজীবী ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *