প্রায় শতভাগ করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে এলো ইলেকট্রোনিক মাস্ক


তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক :

করোনাভাইরাস ঠেকাতে মাস্ক ব্যবহারের বিকল্প নেই। সাধারণ মাস্ক করোনা ঠেকাতে শতভাগ কার্যকর নয়। তাই বিজ্ঞানীরা ইলেকট্রোনিক মাস্ক উদ্ভাবন করলেন। এই মাস্ক নাক বা মুখ দিয়ে ঢোকা বাতাসকে চারটি ফিল্টারের সাহায্যে ৯৮ শতাংশ শুদ্ধ করে শরীরে প্রবেশ করতে দেবে।

মাস্ক নয়, বরং এটি আসলে এয়ার পিউরিফাই করার গ্যাজেট, যা মাস্কের মতোই মুখে পরে থাকতে পারবেন। তার আবরণ ট্রান্সপারেন্ট বা স্বচ্ছ হওয়ায় আপনার মুখের সমস্ত অভিব্যাক্তিও সঠিক ভাবে দেখতে পাবেন আপনার সঙ্গে থাকা মানুষজন। এই মাস্ক এমন ভাবে মুখে এঁটে থাকে, যাতে বাইরের বাতাস পরিশুদ্ধ না হয়ে কোনও ভাবেই শরীরে প্রবেশ করতে না পারে।

মাস্কটি প্রস্তুতকারক সংস্থা জানিয়েছে, এখন বায়ু দূষণের মাত্রা যে হারে বাড়ছে, তা থেকেও রক্ষা করবে এই মাস্ক। আরও একটি বিষয় তারা বার বারই মনে করিয়ে দিচ্ছেন- সাধারণ মাস্ক টানা পরে থাকতে গিয়ে মুখ বারে বারে ঘেমে যায়। এই মাস্ক সেটিও হতে দেবে না। সঙ্গে উপরি পাওনা এর ব্লুটুথ কানেক্টিভিটি। তার সাহায্যে আপনার নাগালে থাকবে বহু তথ্যও।

বিশ্ব জুড়ে আধুনিক এই মাস্কটির পরিচয় ‘এও এয়ার দ্য অ্যাটমোস ওয়্যারেবল এয়ার পিউরিফায়ার। গত জুলাই মাসে বিশ্ববাজারে এর আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। প্রি বুকিং-এর ঘোষণাও করেছিলেন প্রস্তুতকারকেরা। সেই স্টক নিমেষে শেষ।

আপাতত এই আধুনিক মাস্ক পাওয়া যাবে অনলাইনে। দামের বিষয়টা একটু উহ্যই থাক। কারণ এর দাম একটু বেশির দিকেই। আর রেটিং ১০ এ ৯.৮। প্রস্তুতকারকদের দাবি, বাতাস পরিশোধনের নিরিখে সাধারণ মাস্কের তুলনায় ৫০ গুণ বেশি ক্ষমতা ধরে এই গ্যাজেটটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *