মহানবী (সা.)-কে অবমাননা: এবার প্রতিবাদী তানজিন তিশা


বিনোদন রিপোর্ট :

মহানবী হজরত মোহাম্মদ (সা.)-কে অবমাননার জের ধরে ফুঁসে উঠলো মুসলিম বিশ্ব। সেই প্রতিবাদে এরইমধ্যে নিজেকে যুক্ত করলেন দুই বাংলার চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া।
গতকাল তিনি ফরাসি পণ্য বর্জনের ঘোষণা দিয়ে মিডিয়ায় আলোচনার জন্ম দেন।
সেই আলোচনার বাতাস না থামতে রবিবার (১ নভেম্বর) সকালে ফরাসি বিরোধী প্রতিবাদে শামিল হন দেশের অন্যতম জনপ্রিয় টিভি অভিনেত্রী তানজিন তিশা।
নুসরাত ফারিয়া ফরাসি পণ্য বর্জন আন্দোলনে অংশ নিলেও তানজিন তিশা অবশ্য তেমন কোনও সিদ্ধান্ত জানাননি। তবে তিনি বিশ্বব্যাপী নবী করিম (সা.)-কে নিয়ে ব্যাঙ্গ, বিদ্রুপ, অপপ্রচার এবং মিথ্যাচারের প্রতিবাদ জানিয়েছেন শক্ত কণ্ঠে।

রবিবার সকালে তিশা তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘আমরা যারা মুসলিম ঘরের সন্তান, মুসলমান; আমাদের বোধ হবার পর থেকেই একজন মানুষকে অনেক ভালোবাসি, তিনি হলেন আমাদের প্রিয় নবী এবং রাসুল হজরত মুহাম্মদ (সা.)। আল্লাহ নিজে যাকে সর্বোচ্চ সম্মান এবং মর্যাদা দিয়েছেন। কেউ তাঁর সম্মান এবং মর্যাদা একটুও ক্ষুণ্ণ করতে পারে বলে আমি বিশ্বাস করি না। আমার এই পোস্টের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী নবী করিম (সা.)-কে নিয়ে ব্যঙ্গ, বিদ্রুপ, অপপ্রচার এবং মিথ্যাচারের প্রতিবাদ জানাই।’

উল্লেখ্য, মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের জেরে এক মুসলিম উগ্রবাদী কর্তৃক একজন ইতিহাস শিক্ষককে হত্যার পর থেকেই উত্তপ্ত ফ্রান্স। ওই ঘটনার পর অন্তত ৫০টি মসজিদ ও মুসলিম-অধ্যুষিত এলাকায় ভয়াবহ অভিযান চালায় দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

তার এ ঘোষণায় মুসলিম বিশ্বে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। ইসলামের প্রতি এমন মানসিকতার জন্য ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার বলে মন্তব্য করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। মুসলিম দেশগুলোতে ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেওয়া হয়। জানানো হয় তুমুল প্রতিবাদ।

মূলত সেই ডাকেই প্রথম শামিল হলেন দুই বাংলার অন্যতম চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া। তার একদিনের মাথায় তালিকায় যুক্ত হলেন তানজিন তিশাও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *