ভুয়া বিল: বরিশালে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু

বরিশাল প্রতিনিধি :

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ড. এস এম রমিজ আহমেদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়েছে।

করোনাকালীন সময়ে সম্ভাব্য রোগীদের নমুনা বরিশালে প্রেরণের ভুয়া যাতায়াত বিল দেখিয়ে বিপুল পরিমান টাকা আত্মসাতের অভিযোগে শনিবার থেকে এ তদন্ত শুরু হয়।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে পটুয়াখালী জেলা সিভিল সার্জন ডা. জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের কমিটি অভিযোগের তদন্ত করছেন।

ডা. জাহাঙ্গীর আলম শনিবার সন্ধ্যা ৬ টায় জানান, তিনি শনিবার দিনভর মেহেন্দিগঞ্জে অবস্থান করে অভিযোগের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো যাচাই-বাছাই ও সাক্ষ গ্রহণ করেছেন। নিরপেক্ষ অবস্থান বজায় রেখে তদন্ত প্রতিবেদন দেবেন বলে তিনি আশ্বস্ত করেন।

জানা গেছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গত ৫ অক্টোবর ডা. জাহাঙ্গীর আলমকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। আগামী ১৫ কর্মদিবসের মধ্যে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহজনক রোগীর নমুনা সংগ্রহের পর বরিশাল নগরীতে প্রেরনের জন্য স্পিডবোট ভাড়া বাবদ প্রতিটি নমুনার বিপরীতে পাঁচ হাজার টাকা বিল করার অভিযোগ রয়েছে মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এস এম রমিজ আহমেদের বিরুদ্ধে।

এ ছাড়া মেহেন্দিগঞ্জ পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মশিউর রহমান নাদিম ডা. রমিজের অনিয়ম-দুর্নীতি তুলে ধরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে লিখিত অভিযোগ দেন।

জানা গেছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গত ১৮ অক্টোবর ডা. জাহাঙ্গীর আলমকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। আগামী ১৫ কর্মদিবসের মধ্যে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *