করোনাকালে ১০৬ আইনজীবীকে হারালো সুপ্রিম কোর্ট


মহাকাল প্রতিবেদক :

করোনা মহামারির সময়ে সুপ্রিম কোর্টের দুই বিচারক ও ১০৪ জন আইনজীবী মৃত্যুবরণ করেছেন। গত বছরের ২২ ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের ৭ নভেম্বর পর্যন্ত সময়ে কোভিড-১৯, অসুস্থতা ও বার্ধক্যসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে তারা মৃত্যুবরণ করেন।

বুধবার (১১ নভেম্বর) বিকেলে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে দুই বিচারক ও ১০৪ আইনজীবীর মৃত্যুতে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

স্মরণ সভায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির কোষাধ্যক্ষ রাগিব রউফ চৌধুরী বলেন, ‘প্রতিবছর সুপ্রিম কোর্টের গড়ে ৩৩ জন আইনজীবী মৃত্যু হয়। তবে গত আট মাসে একজন সাবেক প্রধান বিচারপতি (মাহমুদুল আমীন চৌধুরী), একজন হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি (মো. মিজানুর রহমান ভূঁইয়া) এবং আমাদের সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ১০৪ জন বিজ্ঞ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। আমরা তাদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন প্রয়াত সহকর্মীদের নাম ধরে ধরে বিভিন্ন সময়ে তাদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনার স্মৃতিচারণ করেন। এছাড়া অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে সম্প্রতি প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন বর্তমান অ্যাটর্নি জেনারেল। তিনি বলেন, ‘সবশেষে আমি যার কথা বলব, তিনি হলেন আমার সিনিয়র মাহবুবে আলম।’

এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে উনার কাছে অনেক বেশি ঋণী। প্রথম থেকেই তার সাথে কাজ করি। তার কথা বলতে গেলে কষ্ট হয়। তরুণ বয়সে যখন সুপ্রিমকোর্টে আসি, তখন থেকেই তার সঙ্গে কাজ আরম্ভ করি। একজন মানুষ আরেকটা মানুষকে কীভাবে গড়ে তুলতে হয়, আমি এটা উনার কাছ থেকে দেখেছি।’

প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের কাছ থেকে কাজ শেখা প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘তার সাথে বসেছি, উনি আমাকে হাতের লেখা শিখিয়েছেন, ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে কীভাবে মামলা ফাইল করতে হয়, সেটা শিখিয়েছেন। কোন মানুষের সাথে খারাপ ব্যবহার করতে বা কাউকে কষ্ট দিতে কখনও দেখিনি। শেষ জীবন পর্যন্ত উনাকে স্মরণ রাখবো। আমি মাহবুবে আলম সম্পর্কে খুব একটা বলতে পারবো না, আমার কষ্ট হয়। আপনারা সবার জন্য দোয়া করবেন। আমরাও একদিন চলে যাব, আমরা সবাই সবার জন্য দোয়া করব। আল্লাহ যেন তাদেরকে বেহেস্ত নসিব করেন।’

একশ’রও বেশি আইনজীবীর মৃত্যু সম্পর্কে বলতে গিয়ে আমিন উদ্দিন বলেন, ‘আমার মনে হয় সুপ্রিম কোর্টের ইতিহাসে ৮-৯ মাসে এতজন আইনজীবী কোনদিনও মারা যায়নি। আপনাদের কাছে অনুরোধ করবো উনাদের জন্য দোয়া করতে। আপনাদের কাছে অনুরোধ করছি, সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ফলে সবাই যেন সুস্থ থাকতে পারি।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস কাজলের সঞ্চালনায় স্মরণ সভায় স্মৃতিচারণ করেন সমিতির সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান মিঞা, আব্দুল জব্বার ভূঁইয়া, কোষাধ্যক্ষ রাগিব রউফ চৌধুরী, আইনজীবী মমতাজ উদ্দীন মেহেদী ও শাহ মঞ্জুরুল হক প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *