জামিন পেয়ে বাদী পক্ষকে আসামির ‘হুমকি’


জয়পুরহাট প্রতিনিধি :

ধর্ষণ মামলায় জামিনে বেরিয়ে এসে আব্দুল কুদ্দুস নামে এক ইউপি সদস্য মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা নিয়ে ধর্ষিতার বাড়ি গিয়ে হর্ন বাজিয়ে উল্লাস, হাততালি ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ করেছেন নির্যাতিত নারী ও তার মা। রবিবার দুপুরে জয়পুরহাট প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন তারা। এ ঘটনায় নির্যাতিত ওই পরিবার শনিবার রাতে জয়পুরহাট সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে নির্যাতিতা নারীর মা বলেন, তার ১৭ বছর বয়সের মেয়েকে জর্ডানে পাঠানোর প্রলোভন দেয় জয়পুরহাট সদরের চকশ্যাম গ্রামের ইউপি সদস্য আব্দুল কুদ্দুস (৫০)। পরে পাসপোর্ট করে দেওয়ার নাম করে গত চার নভেম্বর সদরের খঞ্জনপুরে কুদ্দুস তার আত্মীয়ের বাসায় নিয়ে মেয়েকে ধর্ষণ করে। অভিযোগ পেয়ে জয়পুরহাট র‌্যাব-৫ এর সদস্যরা ওই দিন সন্ধ্যায় ইউপি সদস্য কুদ্দুসকে আটক করে। পরের দিন মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে জয়পুরহাট সদর থানায় তিনি নিজে বাদী হয়ে মামলা করলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়ে দেয়। কিন্তু আদালত থেকে জামিনে ছাড়া পেয়ে গত মঙ্গলবার কুদ্দুস ২০-৩০টি মোটরসাইকেলসহ তার সাঙ্গ-পাঙ্গদের নিয়ে তাদের বাড়ির সামনে গিয়ে উচ্চস্বরে হর্ন বাজিয়ে হাততালি দেয় এবং অশালীন ভাষায় গালাগাল করে। এক পর্যায়ে আবারো নির্যাতনের হুমকি ও ভয় দেখিয়ে তারা চলে যায়। এ অবস্থায় জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে ভীষণ শঙ্কিত নির্যাতিত নারী ও তার পরিবার।

সংবাদ সম্মেলনে নির্যাতিত ওই নারী ও তার মা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- হাফিজুল ইসলাম এবং মুকুল হোসেন নামে তাদের প্রতিবেশী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *