ট্রাম্পের আচরণ ‘চরম দায়িত্বজ্ঞানহীন’: বাইডেন


মহাকাল ডেস্ক :
মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পরাজয়ের পরও একপ্রকার গায়ের জোরে নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করে যাচ্ছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মাঝে একবার পরাজয় মেনে নেওয়ার ইঙ্গিত দিলেও গতকাল সোমবার এক টুইটে ফের বিজয় দাবী করেছেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, আমিই জিতেছি। ট্রাম্পের এমন আচরণকে ‘চরম দায়িত্বজ্ঞানহীন’ বলে আখ্যা দিয়েছেন নির্বাচনে জয়ী প্রার্থী জো বাইডেন।

জানা যায়, সোমবার বাইডেনের নিজ এলাকা ডেলাওয়ারে শ্রমিক ও ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ হু হু করে বাড়তে শুরু করেছে। আমাদের সামনে অনেক বড় একটি চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। ভাইরাসটি দমাতে কার্যকরী কোনো ভ্যাকসিন আসলে সেটা যথাযথ প্রক্রিয়ায় সব মার্কিনীর কাছে পৌঁছাতে হবে। ট্রাম্পের সহায়তা ছাড়া সেটা সম্ভব নয় বলে আমি মনে করি।।

বাইডেন বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প যদি যথাসময়ে ক্ষমতা হস্তান্তরে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন তাহলে করোনার বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধে আমরা হেরে যেতে পারি, যারো কারো জন্যই ভালো হবে না। নিজেদের মধ্যে এই দ্বন্দ্ব চলতে থাকলে সংক্রমণকে আরো ভয়াবহভাবে ছড়িয়ে দেওয়ার সুযোগ দেয়া হবে, যা আমরা কেউ চাই না। আশাকরি তার (ট্রাম্প) শুভবুদ্ধির উদয় হবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সর্বমোট ইলেকটোরাল কলেজ ভোট ৫৩৮টি। এর মধ্যে ট্রাম্প এখন পর্যন্ত ২৩২ ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়েছেন। বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬টি। ২৩২টি ইলেকটোরাল ভোট পেলেও ট্রাম্প তা প্রত্যখ্যান করেন। সেইসঙ্গে পেনসিলভানিয়া, নেভাডা, মিশিগান, জর্জিয়া ও অ্যারিজোনার ফলাফল তিনি চ্যালেঞ্জ করেছেন। পাশাপাশি উইসকনসিনে পুনর্গণনার আবেদন করেছেন ট্রাম্প। তিনি দাবী করেন, এসব রাজ্যের অধিকাংশ ভোটারই তার সমর্থক। কিন্তু নির্বাচনে জালিয়াতি করে তাকে হারানো হয়েছে।

ট্রাম্পের নির্বাচনী ফলাফল প্রত্যাখ্যান করাকে গণতন্ত্রের অপমান আখ্যা দিয়ে বারাক ওবামা বলেন, অবশ্যই তাকে পরাজয় মেনে নিতে হবে এবং জো বাইডেনকে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে গণ্য করতে হবে। ট্রাম্পের তা স্বীকার করে নেয়ার সময় হয়ে গেছে। যদি আপনারা ফলাফল পর্যবেক্ষণ করেন তাহলেই সব পরিষ্কার বুঝে যাবেন। বাইডেন নিরঙ্কুশ জয়লাভ করেছেন। ফলাফল পাল্টে যাবে সেরকম কোনো পরিস্থিতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *