ব্যাটসম্যান বুমরাহকে গার্ড অব অনার সতীর্থদের

স্পোর্টস ডেস্ক :

গোলাপি বল মানেই পেসারদের দাপট। তবে ভারতীয় পেসার জসপ্রীত বুমরাহ দেখালেন ব্যাট হাতে দাপট। একের পর এক ভারতীয় ব্যাটসম্যান যখন ধরাশায়ী হচ্ছেন অস্ট্রেলিয়া এ দলের পেসারদের সামনে, তখন রুখে দাঁড়ালেন ১০ নম্বরে নামা বুমরাহ। ৫৭ বলে অপরাজিত ৫৫ রানের দাপুটে ইনিংসে মারলেন ৬টা চার এবং ২টা ছয়।

প্রথম দিনই দুই দলের প্রথম ইনিংস শেষ হয়ে যায়। ভারতের ১৯৪ রানের জবাবে অস্ট্রেলিয়া এ দল ১০৮ রানে শেষ। ভারতীয় দলের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়া এ দলের ম্যাচের প্রথম দিন বেশ ঘটনা বহুল।

টস জিতে প্রথম ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন ভারতীয় দলের অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে। মায়াঙ্ক আগারওয়াল শুরুতেই ফিরে গেলেও শুক্রবার পৃথ্বী শ ছিলেন টি-২০ মেজাজে। ২৯ বলে ৪০ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। সঙ্গী হন শুভমান গিল (৫৮ বলে ৪৩ রান)। তার পরে একের পর এক ব্যাটসম্যান আসেন এবং ফিরে যান। ব্যর্থ রাহানে (৪ রান), ঋদ্ধিমান সাহা (০ রান), ঋষভ পান্থও (৫ রান)। ব্যাটসম্যানরা যখন নাস্তানাবুদ হচ্ছেন শন অ্যাবটদের সামলাতে, তখন দলের মান বাঁচালেন বুমরাহ। সঙ্গে মহম্মদ সিরাজ খেললেন ৩৪ বলে ২২ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস। ভারত শেষ করে ১৯৪ রানে। অপরাজিত বুমরাহ যখন ড্রেসিংরুমে ফিরছেন বিরাট কোহালিসহ সতীর্থদের দেখা গেল তাকে গার্ড অব অনার দিতে।

বুমরাহ ও সিরাজ ব্যাট করার সময় চোট পান ক্যামেরন গ্রিন। বুমরার মারা বল এসে লাগে তার মাথায়। সঙ্গে সঙ্গে ছুটে আসেন নন স্ট্রাইকার সিরাজ। তার এই ব্যবহারে বেশ আপ্লুত নেটাগরিকরা। গ্রিনের চোট খুব গুরুত্বর নয় বলে জানালেও এই ম্যাচে তার বদলে কনকাশন সাব হিসেবে নেমেছেন প্যাটরিক রো।

বল করতে নেমে আগুন ঝরালেন গোলাপি বলে পরিচিত মোহাম্মদ শামি। ৩ উইকেট নিলেন তিনি। ব্যাটের পর বল হাতেও সফল বুমরাহ। নিলেন ২ উইকেট। উইকেট পেয়েছেন নবদীপ সাইনি (৩ উইকেট) এবং সিরাজও (১ উইকেট)। শুক্রবারের ম্যাচে উইকেটকিপিং করেছেন ঋষভ। কিন্তু ফিল্ডিং করার সময় নজর কাড়লেন ঋদ্ধি। সিরাজের বলে নিক ম্যাডিনসনের ক্যাচ নিলেন কপিল দেবকে মনে করিয়ে। উল্টো দিকে দৌড়ে এসে তার ক্যাচ প্রমাণ দিল ফিটনেসের। ১৭ ডিসেম্বর অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টে উইকেটের পিছনে কাকে দেখা যাবে তা নিয়ে যদিও এখনো ধোঁয়াশা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *