জয়পুরহাটে বাস ও ট্রেনের সংঘর্ষে নিহত ১১


জয়পুরহাট প্রতিনিধি| প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:১৮ |

জয়পুরহাট সদরের পুরানপৈল রেলগেটে রেললাইনের উপর উঠে পড়া একটি যাত্রীবাহী বাসে ধাক্কা দিয়েছে একটি লোকাল ট্রেন। এতে বাসের ১১ যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে পাঁচজন। এই ঘটনায় উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

শনিবার ভোর ছয়টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানিয়েছে, দুর্ঘটনার আগে রেলক্রসিংটির গেট খোলা ছিল। গেটম্যান ঘুমিয়েছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পার্বতীপুর থেকে ছেড়ে আসা উত্তরা এক্সপ্রেস নামের লোকাল ট্রেনটি রাজশাহীর দিকে যাচ্ছিল। এ সময় অরক্ষিত গেটে রেললাইনের উপর থাকা বাঁধন নামে একটি লোকাল বাসকে ধাক্কা দেয়। এতে বাসটি দুমড়েমুচড়ে অনেকদূর ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই ১০ জন এবং হাসপাতালে নেয়ার পর আরও একজন মারা যান।

ঘটনাস্থলে থাকা ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘পার্বতীপুর থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটি রাজশাহীতে যাচ্ছিল। পাঁচবিবি থেকে ছেড়ে আসা বাসটি জয়পুরহাটে যাওয়ার পথে পুরানাপৈল রেলগেটে উঠে পড়ে। এতে ট্রেনটি ওই বাসকে ধাক্কা দিয়ে ৪০০ মিটার দূরে নিয়ে যায়। বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই ১০ জনের মৃত্যু হয়। আহত হন ছয়জন। পরে হাসপাতালে নেয়া হলে আরও একজন মারা যান।’

খবর পেয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গেছেন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জয়পুরহাট আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে। তাদের নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

জয়পুরহাটের জেলা প্রশাসক শরীফুল ইসলাম খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। তিনি উদ্ধারকাজ তদারকি করছেন। ডিসি সাংবাদিকদের জানান, এই ঘটনা তদন্তের পর দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ঘটনাস্থলে থাকা এসপি সালাম কবির খান বলেন, ‘আমরা সাতটার দিকে জেনেছি। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে আসেন। আমরা রেল কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি যাতে দ্রুত লাইনটি চালু করা যায়। এছাড়া এই ঘটনায় কারও গাফিলতি থাকলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

দুর্ঘটনার পর উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। খবর পেয়ে লাইন মেরামতের জন্য রেলওয়ে কর্মীরা ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন। এই রুটে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হতে কয়েক ঘণ্টা সময় লেগে যেতে পারে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *